মঙ্গলবার,  ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,  ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  সকাল ১০:৩৪

ইভিএমের দাবি আওয়ামী লীগেরই -ওবায়দুল কাদের

আগস্ট ৩১, ২০১৮ , ১০:২৯


সিলেট ও গাজীপুর প্রতিনিধি
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম প্রচলনের দাবি আমাদের দলের। অনেক চিন্তা-ভাবনা করে প্রমাণসহ আওয়ামী লীগ নির্বাচন কমিশনের কাছে এ দাবি করেছিল। এতে দ্রুত গণনা হয়, স্বচ্ছ ভোট হয়, ফলাফল দ্রুত দেয়া যায়। তাই আওয়ামী লীগ ইভিএম চায়।

৩০ আগষ্ট বৃহস্পতিবার সিলেটে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সভায় তিনি বক্তব্য রাখছিলেন। এর আগে সকালে গাজীপুরে বিআরটি প্রকল্প ও সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনের সময়ও সেতুমন্ত্রী ইভিএম নিয়ে কথা বলেন। নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার নিয়ে মন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর অনেক দেশেই সময় এবং খরচ সাশ্রয়ের লক্ষ্যে ইভিএম প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। তাই আওয়ামী লীগ ইভিএম ব্যবহারের পক্ষে।

সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সিলেট রেজিস্ট্রারি মাঠে শোকসভায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় নির্বাচন নিয়ে অনেক ষড়যন্ত্র চলছে এবং সেগুলো সরকারের পর্যবেক্ষণে আছে। তিনি বলেন, কারা রাতের আঁধারে, ভোরে ব্যাংকক ও মালয়েশিয়া যাচ্ছেন, ঢাকায় গোপন বৈঠক করছেন সেগুলো আমাদের জানা আছে। ষড়যন্ত্রের চোরাগলি দিয়ে ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন প্রতিহত করা হবে। যত ষড়যন্ত্রই হোক না কেন এদেশে ২০০১ সালের মতো নির্বাচনের পুনরাবৃত্তি হবে না, হতে দেয়া হবে না।

সিলেট আ’লীগের অনৈক্য নিয়ে স্থানীয় নেতাদের হুশিয়ার করেন দলের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, সিটি নির্বাচনে যারা নেতিবাচক ভূমিকায় ছিলেন, কেউ ছাড় পাবেন না। তাদের চিহ্নিত করে শাস্তি দেয়া হবে। সভায় মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, বিএনপি যে কোনো অজুহাতে নির্বাচন বানচাল করতে চায়। এ দেশের মানুষ সেটা হতে দেবে না।

সিলেট সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থী সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরান এ সময় আবেগপ্রবণ হয়ে বক্তব্য দেন। তিনি বলেন, আমার আর মনোনয়নের প্রয়োজন নেই, চাইব না। ভাগ্যের নিষ্ঠুর পরিহাসে নৌকার জয় উপহার দিতে পারিনি।

এর আগে সকালে গাজীপুরের ভোগড়া বাইপাস মোড় এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন শেষে ওবায়দুল কাদের বলেন, সামনে নির্বাচন, জনগণ এখন ইলেকশন মুডে আছে, ভোটের মুডে আছে।

বিএনপি নেতাদের যারা আজ ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করে দেশে একটি অস্থিতিশীল নাজুক পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চান, তারা বোকার স্বর্গে বাস করছেন। বাংলাদেশে ২০১৪ সাল, ২০০১ সাল আর ফিরে আসবে না। সেই খোয়াব দেখলে তা অচিরেই কর্পূরের মতো উবে যাবে। মন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার পরিচ্ছন্ন নেতৃত্ব জনগণ আস্থায় নিয়েছে। ফলে বিএনপির আন্দোলনে জনগণের কোনো সায় নেই।

মন্ত্রী বলেন- পরিষ্কার করে বলতে চাই, অক্টোবরের শেষ সপ্তাহ অথবা নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে যদি নির্বাচন কমিশন জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে তাহলে আমাদের হাতে ২ মাসের মতো সময় আছে। তারা মনে করেছে ২০১৪ সালের মতো দেশে একটা সহিংসতার বাতাবরণ তারা তৈরি করবে। পরিদর্শনকালে মন্ত্রী ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের টঙ্গী থেকে জয়দেবপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত সড়ক উন্নয়নের কাজে জনদুর্ভোগ কমাতে যথাযথ পদক্ষেপ না নেয়া ও দায়িত্বে অবহেলার কারণে বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক সানাউল হক ও বঙ্গবন্ধু ব্রিজ অথরিটি (বিবিএ) প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক লিয়াকত আলীকে কারণ দর্শাতে বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- সড়ক ও জনপথের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী সানাউল হক, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (ঢাকা জোন) আবদুস সবুর, সড়ক ও জনপথের ঢাকা বিভাগীয় প্রকৌশলী সবুজ উদ্দিন খান, গাজীপুর সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী নাহিন রেজা, গাজীপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাসেল শেখ, গোলাম সবুরসহ সড়ক বিভাগের কর্মকর্তারা।

Total View: 733

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter