বুধবার,  ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,  ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  সকাল ৬:০৯

এতিমদের টাকা আত্মসাৎ করেছে মোক্তার হোসেন, প্রশাসন নিরব

অক্টোবর ২৯, ২০২০ , ১৮:২৭

স্টাফ রিপোর্টার
নড়িয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসারের প্রত্যক্ষ মদদে ভোজেশ্বরে অবস্থিত শহীদ ইয়ার উদ্দিন বয়াতী এতিমখানার প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেনের বিরুদ্ধে এতিমদের নামে বরাদ্দকৃত ১ কোটি ৬০ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।
শুধু তাই নয়, তিনি এতিমখানার সভাপতির স্বাক্ষর নকল করে বিভিন্ন সময়ে টাকা উত্তোলন করেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।
এদিকে নড়িয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসার বলছেন, ভোজেশ্বরে অবস্থিত শহীদ ইয়ার উদ্দিন বয়াতী এতিমখানার নিবন্ধন বাতিলের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।
অপরদিকে প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেন অবৈধভাবে এতিমদের নামে টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করছেন, তা এতো বছরেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিতে কেন আসলো না এবং তার বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলো না, এ নিয়ে জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। উপজেলা সমাজসেবা অফিসারের প্রত্যক্ষ মদদেই প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেন এতিমদের নামে বরাদ্দকৃত টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে অনেকে ধারণা করছেন।
নড়িয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিস সূত্রে জানা যায়, ২০১১ সাল থেকে শহীদ ইয়ার উদ্দিন বয়াতী এতিমখানায় ৬৭ জন এতিম দেখিয়ে মোক্তার হোসেন প্রতি বছরে ১৬ লক্ষ ৮ হাজার টাকা উত্তোলন করছেন। এই ভাবে ২০১১ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১ কোটি ৬০ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা উত্তোলন করেছেন।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শহীদ ইয়ার উদ্দিন বয়াতী এতিমখানার ৬৭ জন এতিম নেই। সেখানে রয়েছে ৮ জন এতিম। কোন কালেই সেখানে ৬৭ জন এতিম ছিলো না। দীর্ঘদিন যাবৎ ৮ থেকে ১০ জন এতিম দিয়ে চলছে এ এতিমখানা। কিন্তু এতিমখানার প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেন নড়িয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিস থেকে ৬৭ জন এতিদের নামে প্রতি বছর ১৬ লক্ষ ৮ হাজার করে টাকা তুলে আত্মসাৎ করেছেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মাদ্রাসার কতিপয় শিক্ষক এবং স্থানীয়দের সাথে আলাপ করে আরও জানা যায়, প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেন একজন চতুর মানুষ। সমাজসেবা অফিস থেকে যখনই কোন তদন্ত আসে, তখন সে বাহির থেকে কিছু এতিম ধরে এনে তদন্ত কমিটিকে দেখান। তদন্ত কমিটি ঐ সকল এতিমদের কোন কিছু জিজ্ঞাসা না করে চলে যান। বাস্তবিক অর্থে তারা এই এতিমখানার ছাত্র কি না তা জানতে চান না। প্রকৃত অর্থে এই এতিমখানায় ৮ জনের বেশী এতিম নেই।
এ ব্যাপারে শহীদ ইয়ার উদ্দিন বয়াতী এতিমখানার প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেনের সাথে মুঠোফোনে বক্তব্য চাইলে তিনি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।
এ ব্যাপারে নড়িয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসারের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, শহীদ ইয়ার উদ্দিন বয়াতী এতিমখানার নিবন্ধন বাতিলের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কোন আদেশ পাইনি। তাই কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

Total View: 209

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter