বুধবার,  ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,  ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  রাত ৯:৫৫

খালেদা জিয়ার বিচারে কারাগারেই বসবে আদালত

সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৮ , ২০:৫৮


স্টাফ রিপোর্টার

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার বিচারে পুরান ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ আদালত কারাগারে চলে যাচ্ছে। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া যেখানে বন্দী আছেন, সেখানেই তার বিচার হবে।

৪ সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিষয়টি জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল।

এর আগে বিকেলে এ বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা ড. রেজাউল করিম ও খালেদা জিয়ার আইনজীবী আমিনুল ইসলামের সঙ্গে কথা হলে তারা স্পষ্ট কিছু জানা নেই বলে জানান।

রেজাউল বলেন, ‘শুনতে পাচ্ছি যে, খালেদা জিয়ার মামলা পরিচালনার জন্য কারাগারে আদালত নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। কিন্তু তারা বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেননি।’

খালেদা জিয়ার আইনজীবী আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘আগামীকাল জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার শুনানি আছে। আমরা আদালতে গিয়ে কথা বলব, তবে এ মামলা শুনানি করতে কারাগারেই আদালত বসানো হবে নাকি কারাগারে আদালত স্থানান্তর করা হবে, সেটা বলতে পারব না। আমাদের কাছে এ রকম কোনো চিঠি আসেনি।’

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি থেকে আসামি জিয়াউল হক মুন্নার পক্ষে যুক্তিতর্ক শুনানি অব্যাহত আছে। খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন বাকি রয়েছে।

এদিকে আদালত স্থানান্তরের বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়। এতে স্বাক্ষর করেন রাষ্ট্রপতির উপসচিব (প্রশাসন-১) মোঃ মাহবুবার রহমান সরকার।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে ৫ বছর কারাদণ্ড দেয় বকশীবাজারের অস্থায়ী আদালতের বিচারক ড. আকতারুজ্জামান। সেই দিন থেকেই খালেদা জিয়া নাজিমুদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন। কারাবন্দী হওয়ার পর থেকে তাকে আর আদালতে হাজির করা হয়নি।

২০১১ সালের ৮ আগস্ট খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা দায়ের করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ মামলায় ২০১২ সালের ১৬ জানুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

মামলাটিতে বিএনপি নেতা হারিছ চৌধুরী, তার তৎকালীন একান্ত সচিব জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান আসামি।

মামলাটিতে খালেদা জিয়াসহ অপর আসামিদের বিরুদ্ধে ২০১৪ সালের ১৯ মার্চ তৎকালীন বিচারক বাসুদেব রায় অভিযোগ গঠন করেন।

Total View: 835

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter