সোমবার,  ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,  ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  রাত ৩:২১

খালের উপর সুইচ গেট হুমকীর মুখে বাজারসহ শতাধিক স্থাপনা

মে ১৩, ২০১৮ , ২২:০১


শাকিল আহম্মেদ
শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুরে খালের উপর ৪টি অপরিকল্পিত ভাবে সুইচ গেট স্থাপন করায় বর্ষার পানি জমে এলাকার প্রায় ১ হাজার একর জমির ফসল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আর ক্ষেতের ফসল হারিয়ে এলাকায় কয়েক হাজার কৃষক নিঃস্ব হয়ে পড়ছে। পাশাপাশি শুস্ক মৌসুমে সুইচ গেট দিয়ে সুষ্ঠভাবে পানি প্রবাহ না থাকায় নৌযান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে এলাকার ব্যবসায়ীরা তাদের মালামাল সঠিক ভাবে আনতে পারছে না। বিধায় বেশ কয়েকটি বাজারসহ কয়েক হাজার ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান হুমকির মুখে পড়েছে। তাই জরুরী ভিত্তিতে সুইচ গেট উচ্ছেদের দাবী জানিয়েছে এলাকাবাসী। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সখিপুর থানার বিভিন্ন এলাকায় সরকারি ভাবে ৪টি সুইচ গেট স্থাপন করা হয়েছে। তাদের মধ্যে সখিপুর পুরান থানা সংলগ্ন একটি, রশিদ বেপারীর কান্দি একটি, ডি.এম খালী ইউনিয়নের কাশিমপুরে একটি এবং আরশি নগর ইউনিয়নে একটি সুইচ গেট রয়েছে। এই সুইচ গেট গুলো প্রায় ২০ বছর আগে কোন সুনির্দিষ্ট কারণ ছাড়াই স্থাপন করা হয়েছে। তবে কোন অফিস, কত টাকা ব্যয়ে এ গেট গুলো স্থাপন করেছেন সে সম্পর্কে কোন তথ্য জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ড, উপজেলা কৃষি অফিস অথবা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অফিসের কেউ দিতে পারেনি। স্থানীয় বাসিন্দা মনিরুল বাশারের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, সখিপুর, আরশি নগর ক্ষুদ্র পানি ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের অধীনে প্রায় বিশ বছর আগে একটি সমন্বিত প্রকল্পের মাধ্যমে এ গেট গুলো নির্মাণ করে সরকার। যার নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছিল প্রায় ১ কোটি ৩৫ লক্ষ টাকা। ক্ষুদ্রাকৃতির এসব সুচই গেট গুলোর নিচ দিয়ে কোন প্রকার নৌযান চলাচল করতে না পারায় সড়ক পথে পরিবহন খরচ দ্বিগুন বেড়ে গেছে। হুমকির মুখে পড়েছে সখিপুরের ঐতিহ্যবাহী পশুর হাটসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। আর ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে সাধারণ জনগনের। সখিপুর বাজারের দক্ষিণ পাশের প্রায় ১ হাজার একর জমিতে প্রতি বছর ধান, গম ও পাটসহ বিভিন্ন ফসলাদি উৎপন্ন হয়। এ ফসলের মাঠের উপর নির্ভর করে এ এলাকার প্রায় ২ হাজার কৃষক তাদের জীবিকা নির্বাহ করে। কিন্তু সুইচ গেট দিয়ে এ মাঠের পানি সরতে না পারায় পানিতে ডুবে নষ্ট হচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকার শস্য। এক কথায় ক্ষুদ্রসেচ সুবিধার কথা চিন্তা করে নির্মাণ করা হলেও এসব সুইচ গেট এখন কৃষকের অভিশাপ হয়ে দাড়িয়েছে। স্থানীয় কৃষক শাহ জালাল মাদবর, আবুল হোসেন বলেন, কি কারণে এই সুইচ গেট তৈরী হয়েছে জানি না। তবে এই সুইচ গেটের কারণে প্রতি বছর আমাদের জমির ফসল পানিতে তলিয়ে যায়। আমাদের অনেক লোকসান হয়। আমরা চাই সুইচ গেট গুলো সরকার ভেঙ্গে ফেলুক। পিরাজল সরদার ও খোকন মাদবর বলেন, সুইচ গেটে দিয়ে পানি সরতে না পারায় আমাদের জমিজমা, ঘরবাড়ি, পানিতে তলিয়ে যায়। গত বছর এ বিলের সকল কৃষকের ধান,পাট পানিতে নষ্ট হয়ে গেছে। সখিপুর বাজারের হার্ডওয়্যার ব্যবসায়ী ইকবাল সরদার ও হোসেন সরদার বলেন, আগে এ বাজারের পাশের খাল দিয়ে নৌকা, ট্রলার চলাচল করতো। সুইচ গেটের কারণে এখন এ খাল দিয়ে কোন নৌকা চলতে পারেনা। সড়ক পথে পরিবহন খরচ বেশী হওয়ায় আমাদের ব্যবসায় হুমকির মুখে পড়েছে। তাছাড়া পানি প্রবাহ না থাকায় খালটি ভরাট হয়ে যাচ্ছে এবং ভূমি দস্যুরা খালটি অবৈধ ভাবে দখল করে নিচ্ছে। সখিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান মানিক সরদার বলেন, এই সব সুইচ গেটের কারণে ফসলের ক্ষতি হচ্ছে। কৃষকরা নিঃস্ব হয়ে পড়ছে। এলাকার একটি গুরুত্বপূর্ণ গরুর হাট এবং সখিপুর বাজার হুমকির মুখে পড়েছে। অতিদ্রুত এ সুইচ গেট গুলো অপসারণ করা প্রয়োজন। এ বিষয়ে ভেদরগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ সাখাওয়াত হোসেন বলেন, অপরিকল্পিত ভাবে স্থাপিত এসব সুইচ গেটের কারণে দীর্ঘদিন যাবৎ ঐ সব এলাকার কৃষি কাজ চরম ভাবে ব্যাহত হচ্ছে। কোন অফিসের মাধ্যমে গেট গুলো স্থাপন করা হয়েছে তা জানি না। তবে কৃষকের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে দ্রুত এ সব সুইচ গেট অপসারণ করা প্রয়োজন। ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাব্বির আহমেদ বলেন, বিষয়টি যথাযথ কর্তৃপক্ষকে অবগত করে দ্রুত সমাধানের চেষ্টা করা হবে।

Total View: 1236

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter