বৃহস্পতিবার,  ২১শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,  ৭ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  রাত ৪:৫৩

ছয় মাসে ৯৩ টি বাল্যবিবাহ বন্ধ করে রেকর্ড গড়লেন ভেদরগঞ্জের ইউএনও

মে ২৭, ২০১৮ , ২৩:১৫


স্টাফ রিপোর্টার
ছয় মাসে ৯৩টি বাল্যবিবাহ বন্ধ করে রেকর্ড গড়লেন ভেদরগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাব্বির আহমেদ। গত মঙ্গলবারের আগ পর্যন্ত ৯১টি বাল্যবিবাহ বন্ধ করেছিলেন। ২৩মে মঙ্গলবার আরও ২টি বাল্য বিয়ে বন্ধ করে ৯৩টি পূর্ণ করলেন। আর অল্প কিছুদিনের মধ্যে সেঞ্চুরী পূর্ণ করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাব্বির আহমেদ ভেদরগঞ্জে যোগদানের পর বাল্যবিবাহ, মাদক এবং অবৈধ ড্রেজারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করেন। তিনি ৬ মাসে অসংখ্য অবৈধ ড্রেজার ধ্বংস করার পাশাপাশি মাদক এবং বাল্যবিবাহ নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ভেদরগঞ্জে যোগানের আগে এ জনপদের অবস্থা ছিলো খুবই ভয়াবহ। তিনি যোগদানের পর এ উপজেলার চিত্রই পাল্টে গেছে। তাকে সহযোগিতা করলে উপজেলার উন্নয়ন হবে বলে মনে করছে সুশীল সমাজ। এবার যারা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সহায়তায় বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেলেন তারা হলেন সখিপুর ছৈয়াল কান্দি গ্রামের শাহজাহান সরদারের মেয়ে সখিপুর ইসলামিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী সুমাইয়া (১৪) এবং চরকুমারিয়া ইউনিয়নের বেপারী কান্দি গ্রামের সবুজ বেপারীর মেয়ে চরকুমারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী লিমা আক্তার (১৬)। সুমাইয়ার বিয়ে ঠিক করা হয় চরসেন্সাস ইউনিয়নের বালা কান্দি গ্রামের পবন ঢালীর পুত্র আয়াতুল্লাহ ঢালীর সাথে। আর লিমার বিযে ঠিক করা হয় চরকুমারিয়া ইউনিয়নের বেপারী কান্দি গ্রামের সফিক সরদারের ছেলে রূবেল সরদারের সাথে। সখিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান মানিক সরদার এবং চরকুমারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক মোল্যার সাহায্যে উভয় পরিবারের সদস্যদের ডেকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ নিলে উভয় বর এবং কনে পক্ষ তাদের ভুল বুঝতে পেরে তাদের অপরাধ স্বীকার করেন। মেয়ের বয়স ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে দেবো না এই মর্মে তারা অঙ্গিকার নামা প্রদান করেন। এ ব্যাপারে সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, এ্যাডভোকেট মুরাদ হোসেন মুন্সি এবং এ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান জুয়েল বলেন, ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাব্বির আহমেদ এলাকার উন্নয়নে অনেক কাজ করছেন। তিনি ভেদরগঞ্জে যোগদানের পর ঐ উপজেলার চেহারাই পাল্টে দিয়েছেন। তিনি মাদক, অবৈধ ড্রেজার এবং বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করেছেন। তারই ধারাবাহিকতায় অনেক ড্রেজার ধ্বংস করার পাশাপাশি ৯৩টি বাল্যবিবাহ বন্ধ করেছেন। যা প্রশংসার দাবী রাখে। আমাদের উচিত তাকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করা। যাতে তিনি আরো বেশী কাজ করার উৎসাহ পান। এ ব্যাপারে ভেদরগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাব্বির আহমেদের সাথে মুঠোফোনে আলাপ কালে তিনি বলেন, আমি আমার দায়িত্ব পালন করছি মাত্র। আমাকে তথ্যদিয়ে সহযোগিতা করুন। অবশ্যই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবো। তবে বাল্যবিবাহ, মাদক এবং অবৈধ ড্রেজারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। মাইন্ড ইট, এ সব ব্যাপারে কোন ছাড় দেয়া হবে না।

Total View: 1066

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter