শুক্রবার,  ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,  ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,  সকাল ৭:৪৯

দলীয় মনোনয়ন পেতে তদবীর শুরু করেছে রুদ্রকর ইউনিয়নের সম্ভাব্য প্রার্থীরা

ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২১ , ১৯:৩৬

স্টাফ রিপোর্টার
শরীয়তপুর সদর উপজেলার রুদ্রকর ইউনিয়নে নির্বাচনী হাওয়া বইতে শুরু করেছে। সেই ধারাবাহিকতায় দলীয় মনোনয়ন পেতে তদবীর শুরু করেছে সম্ভাব্য প্রার্থীরা।
সম্ভাব্য প্রার্থীরা ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে দোয়া প্রার্থনা করার পাশাপাশি হরেক রকমের পোষ্টার, ফেস্টুন লাগিয়ে দোয়া চাইছেন। কোন কোন সম্ভাব্য প্রার্থীরা ভোটারের বাড়ি গিয়ে উঠান বৈঠক করছেন। দিচ্ছেন বিভিন্ন ধরণের প্রতিশ্রুতি।
এদিকে পাড়া মহল্লার হোটেল বা চায়ের দোকানে চলছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে ব্যাপক আলোচনা। চলছে চুল চেরা হিসেব নিকাশ। প্রশ্ন একটাই, কে হচ্ছেন পরবর্তী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান।
অপরদিকে রাজনৈতিক দলের সম্ভাব্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মনোনয়ন লাভের আশায় তদবীর শুরু করছেন।
এবার রুদ্রকর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যার পদ প্রার্থী হিসেবে পাঁচজন লোকের নাম জোড়ে শোড়ে শোনা যাচ্ছে। তারা হলেন, মোতালেব ঢালী, এ্যাডভোকেট সানোয়ার হোসেন মল্লিক, এ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন, সিরাজুল ইসলাম ঢালী এবং হাবিবুর রহমান ঢালী।
এই পাঁচজন সম্ভাব্য প্রার্থীর মধ্যে কেউ রয়েছেন সাবেক সংসদ সদস্য বি.এম মোজাম্মেল হকের গ্রুপের, আবার কেউ রয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য জননেতা ইকবাল হোসেন অপু’র গ্রুপের। তারা সবাই দলীয় মনোনয়ন পাবেন বলে আশাবাদী।
এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান প্রার্থী এ্যাডভোকেট সানোয়ার হোসেন মল্লিকের সাথে আলাপ কালে তিনি বলেন, আমি রাজনীতিতে নতুন। আমি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রানিত হয়ে দেশ ও জনগনের স্বার্থে কাজ করছি। শরীয়তপুর-১ আসনের সাংসদ জননেতা ইকবাল হোসেন অপু এমপি যদি আমাকে নির্বাচন করার অনুমতি দেন তাহলে আমি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবো।
বর্তমান চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান ঢালী বলেন, আমি রুদ্রকর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে কর্মরত। আমি চেয়ারম্যান থাকাকালীন রুদ্রকর ইউনিয়নের সাধারণ জনগনের সাথে মেশার সুযোগ হয়েছে। আমি বিগত দিন গুলোতে রুদ্রকর ইউনিয়নবাসীর পাশে ছিলাম। আমি এলাকার সকল শ্রেণীর মানুষের সাথে চলাফেরা করেছি। তাদের চাওয়া পাওয়া কি আমি তা বুঝতে পারি। তাই তারা আমাকে পুনরায় রুদ্রকর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়। তাদের ভালবাসাকে মূল্যায়ণ করতেই আমি এবারও নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবো। আমি চেয়ারম্যান থাকাকালীন এলাকার অনেক উন্নয়ন করেছি। সেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে রুদ্রকর ইউনিয়নবাসীর কাছে আমি আরেক বার সুযোগ চাই।
আরেক সম্ভাব্য প্রার্থী এ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমি দীর্ঘদিন যাবৎ আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত। রুদ্রকর ইউনিয়নবাসী আমাকে অনেক ভালোবাসে। দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয় তাহলে আমি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবো।
আরেক সম্ভাব্য প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম ঢালী বলেন, আমি দীর্ঘদিন এলাকার উন্নয়নে কাজ করে আসছি। জননেতা ইকবাল হোসেন অপু এমপি’র সাথে আমার রয়েছে মধুর সম্পর্ক। তিনি আমাকে স্নেহ করেন। আশা করি রুদ্রকর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে আমাকেই মনোনয়ন দিবেন।

Total View: 231

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter