বৃহস্পতিবার,  ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,  ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  বিকাল ৩:৫৪

দুই পুলিশ কর্মকর্তার দাঁত ভেঙে দিল ছাত্রলীগ নেতারা

জানুয়ারি ২৮, ২০১৯ , ০৯:১৯

শেরপুর প্রতিনিধি
শেরপুরে শ্রীবরদী থানা পুলিশের দুই সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আব্দুল হান্নান ও মো. রফিকুল ইসলামকে মারধরের অভিযোগে উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জিয়াউল হক জেনারেলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার রাতে শ্রীবরদী শহরের চৌরাস্তা মোড়ে দুই পুলিশ সদস্যকে মারধর করা হয়। এ ঘটনার পর শহরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। শহরের বিভিন্ন এলাকায় পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, প্রতিদিন শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে ১০-১৫ জন বখাটে যুবক নানা ধরনের নেশা করত। এ নিয়ে চিকিৎসকরা থানায় অভিযোগ দেয়। রোববার বিকেলে ওসির নির্দেশে শ্রীবরদী থানা পুলিশের দুই এএসআই আব্দুল হান্নান ও মো. রফিকুল ইসলাম হাসপাতালের ভেতর থেকে কয়েকজনকে ডেকে নিয়ে আসে। পরে ওসি রহুল আমিন জিজ্ঞাসাবাদ করে ভবিষ্যতে হাসপাতালের ভেতর না যাওয়ার জন্য তাদের নির্দেশ দিয়ে ছেড়ে দেন।

স্থানীয়রা জানান, ওই যুবকরা ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত এবং ধরার সময় তাদের চড়-থাপ্পড় দেয় পুলিশ সদস্যরা। এ ঘটনার জের ধরে রাত সাড়ে ৭টার দিকে পুলিশের এএসআই আব্দুল হান্নান ও মো. রফিকুল ইসলাম শ্রীবরদী বাজারের চৌরাস্তা মোড়ে কর্তব্য পালন করতে গেলে তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। এ সময় তাদের মারধর করা হয় এবং মোবাইল ছিনিয়ে নেয়া হয়। হামলায় দুই পুলিশ কর্মকর্তার দাঁত ভেঙে যায়।

পুলিশের এএসআই আব্দুল হান্নান ও মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ছাত্রলীগ নেতা জিয়াউল হক জেনারেল ও শাকিলের নেত্বত্বে আমাদের ওপর হামলা হয়েছে। অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছি আমরা।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট মো. মেরাজ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বেশ কয়েকজন যুবকের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি ও বাগবিতণ্ডা হয়েছে। তাদের কেউ চিনে না। এরা ছাত্রলীগের কেউ না। রাতে আমি ও ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক হেঁটে যাচ্ছিলাম। এ সময় পুলিশ এসে জেনারেলকে ধরে নিয়ে যায়। তাকে লাঞ্ছিত করেছে পুলিশ।

এ বিষয়ে শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শ্রীবরদী-নালিতাবাড়ী সার্কেল) মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, পুলিশ সদস্যদের মারধরের অভিযোগে জেনারেল নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যদের ধরতে অভিযান চলছে। কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

Total View: 366

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter