রবিবার,  ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,  ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,  সন্ধ্যা ৭:৪৪

নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে সবচেয়ে কলঙ্কময় দিন : প্রধানমন্ত্রী আরডের্ন

মার্চ ১৫, ২০১৯ , ২১:১১

সংলাপ ৭১.কম আন্তর্জাতিক ডেক্স
নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার পর জাতির উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডের্ন। তার সেই বক্তব্য এবং এরপরে সংবাদ সম্মেলনে দেয়া বক্তব্য সংলাপ ৭১.কমের পাঠকদের জন্য তুলে দেয়া হলো।

জাতির উদ্দেশে জাসিন্ডা আরডের্ন বলেন, ‌‌‘নিশ্চিতভাবেই এটি একটি সন্ত্রাসী হামলা। যতোটুকু খবর পেয়েছি, পুরো হামলার ঘটনাটি পূর্ব পরিকল্পিত এবং ঠাণ্ডা মাথায় ঘটানো হয়েছে। অভিযুক্তদের বিস্ফোরকভর্তি দুটি গাড়ি জব্দ করে পুলিশ তা নিস্ক্রিয় করেছে। আটক চারজনের তিনজন্য এই হামলার সঙ্গে সম্পৃক্ত। এরমধ্যে একজন জন্মসূত্রে অস্ট্রেলীয় বলে স্বীকার করেছে। এই ব্যাক্তিরা যারা এ ধরনের জঙ্গি মনোভাব নিয়ে চলে, নিউজিল্যান্ডে তাদের কোনো স্থান নেই। বিশ্বের কোথাও তাদের স্থান নেই।

হামলার সঙ্গে আর কেউ সম্পৃক্ত নেই এ মুহূর্তে তা নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়। তবে রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দাকে তদন্তে আনা হয়েছে, পুলিশ তাদের সব ধরনের সূত্র এতে ব্যবহার করছে, সব সম্ভাবনাই যাচাই করে দেখা হচ্ছে। এছাড়া বিশেষ নিরাপত্তাবাহিনীকেও এখানে ব্যবহার করা হচ্ছে। জাতীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে সর্বোচ্চ সতকাবস্থা জারি করা হয়েছে। ক্রাইস্টচার্চ থেকে সব ধরনের বিমানযাত্রা আগামীকাল পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।

এখন এই হামলার শিকার হওয়া মানুষগুলোর জন্য কিছু বলতে চাই। এই কথাগুলো শুধু আমার একার নয়, পুরো নিউজিল্যান্ডের। ক্রাইস্টচার্চকে এই মানুষগুলো তাদের ঘর বানিয়েছিলেন। তারা হয়তো এখানে জন্ম নেননি কিন্তু এই শহরকে তারা ঘর বলতেন, এই শহরে তারা তাদের সবকিছু সমর্পণ করেছেন। এ শহরকে তারা তাদের পরিবার অংশ করেছেন। তারা এই শহরকে ভালোবেসেছেন এবং শহরটিও তাদের। এখানে তারা এসেছিলেন নিরাপত্তার জন্য। নিরাপত্তার সঙ্গে তারা তাদের সংস্কৃতির বিকাশ ঘটিয়েছেন, নিজ ধর্মের চর্চা করেছেন। যারা

এখন ঘরে বসে ভাবছেন কেন এই হামলা হলো, বলছি; আমরা, নিউজিল্যান্ড, এই হামলার শিকার হয়েছি এই জন্য নয় যে আমরা তাদের অাশ্রয় দেই যারা ঘৃণা করে। বর্ণবাদকে প্রশ্রয় দেই বলে বা জাঙ্গবাদকে সমর্থন করি বলে আমাদের ওপর এই সন্ত্রাসী আঘাত আসেনি। আমাদের বেছে নেয়া হয়েছে কারণ আমরা ওগুলোর কোনোটাই করি না। হামলার জন্য আমাদের বেছে নেয়া হয়েছে আমাদের বৈচিত্র্যতা, উদারতা, সহমর্মিতার জন্য। নিউজিল্যান্ড তাদেরই ঘর যারা আমাদের মতোই এই মূল্যবোধের চর্চা করে। জোর দিয়ে সবাইকে নিশ্চিত করতে চাই এই জঘন্য হামলা কোনো ভাবেই অামাদের এই মূল্যবোধের বিন্দুমাত্র পরিবর্তন করতে পারবে না।

দুইশতাধিক নৃগোষ্ঠির ঘর আমাদের এই নিউজিল্যান্ড, ১৬০টির ওপর ভাষায় যারা কথা বলে। জাতিগত বৈচিত্রতা থাকলেও আমরা সবার মূল্যবোধ এক ও অভিন্ন। আর এখন, আজ রাতে আমাদের সামনে একটি মূল্যবোধই সবচেয়ে উজ্জল আর তা হলো সহমর্মিতা। যে বিশেষ জাতিস্বত্তার ওপর হামলা হয়েছে তাদের প্রতি এবং ঘৃণা যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের উদ্দেশ্যে আমার বক্তব্য একটাই, আমাদের বেছে নিয়েছো, কিন্তু আমরা তোমাদের চূড়ান্তভাবে প্রত্যাখান করছি, ধিক্কার দিচ্ছি।’

পরে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডের্ন বলেছেন, ‌‘এটা স্পষ্ট করে বলতে পারি যে এ দিনটি নিউজিল্যান্ডের অন্ধকারতম দিনগুলোর একটি। এখানে আজ যা ঘটেছে নিশ্চিতভাবে তা নজিরবিহীন সহিংস কর্মকাণ্ড। যারা এই হামলা শিকার হয়েছেন হয়তো তারা অভিবাসী; হয়তো তারা উদ্বাস্তু হয়ে এদেশে এসেছেন। তারা নিউজিল্যান্ডকে তাদের ঘর হিসেবে বেছে নিয়েছেন। এবং জোর দিয়েই বলতে পারি, এটাই তাদের ঘর। তারা প্রত্যেকেই এখন নিউজিল্যান্ডের, তারা আমাদের। কিন্তু আমাদের বিরুদ্ধে ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটানো ব্যাক্তিটি আমাদের কেউ নন। নিউজিল্যান্ডে তাদের কোনো স্থান নেই। নিউজিল্যান্ডে এ ধরনের সহিংস সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কোনো স্থান নেই। আমার মন এবং প্রত্যেক নিউজিল্যান্ডবাসীর মন এখন এ ঘটনায় আক্রান্ত মানুষ এবং তাদের পরিবারের জন্য কাঁদছে।

ক্রাইস্টচার্চের পরিস্থিতি এখনো সাভাবিক নয়। সেখানকার পুলিশ প্রধান আমাকে বলেছেন, নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সবাইকে অনুরোধ করবো তারা যেন পরিস্থিতি সাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত তারা যেন ঘরের বাইরে বের না হন। অনেকেই তাদের স্বজনদের খুঁজে পাচ্ছেন না। তাদেরকে নিউজিল্যান্ড পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। তবে আবারো তাদের অনুরোধ করবো কিছু সময়ের জন্য হরেও ঘরে নিরাপদে থাকুন। পুলিশ এখনো কিছু বিশেষ পরিস্থিতি মোকাবেলা করছে। বেশ কয়েকটি স্থানে পুলিশের অভিযান এখনো চলছে। তারা যথেষ্ঠ সক্রিয়তার সঙ্গে এর মোকাবেলা করছে। এইক সঙ্গে ক্রাইস্টচার্চের হাসপাতালগুলো সর্বোচ্চ সহমর্মিতার সঙ্গে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছে।’

Total View: 392

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter