বুধবার,  ২৮শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,  ১২ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  সন্ধ্যা ৬:১২

বাবা ও ছেলেকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় ৩ জন আটক

মে ১৮, ২০১৮ , ০২:১১

স্টাফ রিপোর্টার
শরীয়তপুর সদর উপজেলায় চুরির অপবাদে উত্তর চন্দ্রপুর গ্রামের খোকন মোল্যা ও তার ১০ বছরের ছেলে শামীমকে শিকলে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে চন্দ্রপুর ফাঁরির পুলিশ। সোমবার গভীর রাতে উত্তর চন্দ্রপুর এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।
আটককৃতরা হলেন, মাদারীপুর সদর উপজেলার ছিলারচর গ্রামের ওহাব আলী বেপারীর ছেলে করম আলী বেপারী, সাহেব আলী বেপারী ও শরীয়তপুর সদর উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের হালিম বেপারীর ছেলে সুমন বেপারী।
শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন জানান, শিকল বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় খোকন মোল্যার স্ত্রী ফাহিমা বেগম বাদী হয়ে পাঁচ জনকে আসামি করে পালং মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলার প্রেক্ষিতে তিন জনকে আসামিকে আটক করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।
উল্লেখ্য, গত ৮ মে দিবাগত রাতে শরীয়তপুর সদর উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের উত্তর চন্দ্রপুর গ্রামের হালিম বেপারীর বাড়িতে চুরি হয়। ৯ মে সকালে খোকন মোল্যার ছেলে শামীমকে চুরির সন্দেহে হালিম মোল্যার বাড়িতে ধরে নিয়ে যায়। সেখানে হালিম বেপারী, রাহিলা বেগম, রহম আলী বেপারী, করম আলি বেপারী এবং সাহেব আলী বেপারী তাকে কাঁঠাল গাছের সাথে বেঁধে বেদম মারধর করে। তার কিছুক্ষণ পর ওই বাড়ির সামনে দিয়ে শামীমের বাবা খোকন মোল্যা ভ্যান চালিয়ে যাওয়ার সময় তাকেও ধরে নিয়ে একই শিকল দিয়ে বেঁধে বেদম মারধর করে। খবর পেয়ে সন্ধ্যায় সন্তোসপুর ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শামীম ও তার বাবা খোকন মোল্যাকে উদ্ধার করে। পরে তাদেরকে চিকিৎসার জন্য শরীয়তপুর আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শরীয়তপুরে বাবা ও ছেলেকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় ৩ জন আটক
স্টাফ রিপোর্টার
শরীয়তপুর সদর উপজেলায় চুরির অপবাদে উত্তর চন্দ্রপুর গ্রামের খোকন মোল্যা ও তার ১০ বছরের ছেলে শামীমকে শিকলে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে চন্দ্রপুর ফাঁরির পুলিশ। সোমবার গভীর রাতে উত্তর চন্দ্রপুর এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।
আটককৃতরা হলেন, মাদারীপুর সদর উপজেলার ছিলারচর গ্রামের ওহাব আলী বেপারীর ছেলে করম আলী বেপারী, সাহেব আলী বেপারী ও শরীয়তপুর সদর উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের হালিম বেপারীর ছেলে সুমন বেপারী।
শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন জানান, শিকল বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় খোকন মোল্যার স্ত্রী ফাহিমা বেগম বাদী হয়ে পাঁচ জনকে আসামি করে পালং মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলার প্রেক্ষিতে তিন জনকে আসামিকে আটক করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।
উল্লেখ্য, গত ৮ মে দিবাগত রাতে শরীয়তপুর সদর উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের উত্তর চন্দ্রপুর গ্রামের হালিম বেপারীর বাড়িতে চুরি হয়। ৯ মে সকালে খোকন মোল্যার ছেলে শামীমকে চুরির সন্দেহে হালিম মোল্যার বাড়িতে ধরে নিয়ে যায়। সেখানে হালিম বেপারী, রাহিলা বেগম, রহম আলী বেপারী, করম আলি বেপারী এবং সাহেব আলী বেপারী তাকে কাঁঠাল গাছের সাথে বেঁধে বেদম মারধর করে। তার কিছুক্ষণ পর ওই বাড়ির সামনে দিয়ে শামীমের বাবা খোকন মোল্যা ভ্যান চালিয়ে যাওয়ার সময় তাকেও ধরে নিয়ে একই শিকল দিয়ে বেঁধে বেদম মারধর করে। খবর পেয়ে সন্ধ্যায় সন্তোসপুর ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শামীম ও তার বাবা খোকন মোল্যাকে উদ্ধার করে। পরে তাদেরকে চিকিৎসার জন্য শরীয়তপুর আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

Total View: 929

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter