সোমবার,  ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,  ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  রাত ২:২৬

ব্রীজ আছে কিন্তু ব্রীজে উঠার সুযোগ নেই

মে ১৩, ২০১৮ , ২১:০১

ভেদরগঞ্জ প্রতিনিধি
ভেদরগঞ্জ উপজেলার ডি.এম খালী ইউনিয়নে তিন বছর আগে নির্মিত একটি ব্রীজের দুই পাশের সংযোগ সড়ক নির্মাণ না করেই বিল তুলে নিয়েছেন ঠিকাদার। আর এ বিল তুলতে প্রত্যক্ষ ভাবে সহযোগিতা করেছেন উপজেলা প্রকৌশলী। ঠিকাদারের কাছে থেকে বিল তোলার ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী কি সুবিধা নিয়েছেন তা জানতে চেয়েছেন স্থানীয়রা। উপজেলা প্রকৌশলীর দায়িত্বে অবহেলা, অনিয়ম এবং দুর্নীতির কারণে ভোগান্তি পোহাচ্ছে ঐ এলাকার হাজার হাজার জনগন। স্থানীয়দের অভিযোগ, দায়িত্ব প্রাপ্ত ঠিকাদার সংযোগ সড়ক নির্মাণ না করে বিল তুলে নিলেও কোন পদক্ষেপ নেয়নি স্থানীয় প্রশাসন। স্থানীয় বাসিন্দা শামীম আজাদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, ডি.এম খালী ইউনিয়নের হকপুর থেকে মোল্যাকান্দির এ কাঁচা সড়কটি দিয়ে হাজার হাজার যাত্রীসহ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা যাতায়াত করে। আর এ রাস্তার পশ্চিম মাথায় ৮১ নং মোল্যা বাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে খালের উপর ব্রীজটি নির্মাণ করা হয়েছে। ২০১৬ সালে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) ব্রীজটি নির্মাণ করেন। আর এ নির্মাণ কাজের ঠিকাদার ছিলেন ভেদরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মান্নান বেপারী। তিনি ব্রীজটির দুই পাশে মাটি ভরাট না করেই এলজিইডি’র কর্মকর্তাদের যোগসাজসে বিল তুলে নিয়েছেন। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন ৮১ নং ডি.এম খালী মোল্যাবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কয়েক’শ শিক্ষার্থীসহ রাস্তা দিয়ে যাতায়াতকারী হাজার হাজার সাধারণ জনগন। তারা প্রতিনিয়ত জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছেন এ ব্রীজটি দিয়ে। স্থানীয় সজিব মিয়া বলেন, নির্মাণের পর ব্রীজটির দুই পাশের সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি। এক পাশে বাঁশ দিয়ে সংযোগ করা হলেও অন্যপাশে কিছুই নেই। লাফিয়ে নামতে হয়। কোন গাড়ি নিয়ে যাওয়া যায় না। স্থানীয় আকলিমা বেগম বলেন, ব্রীজটির কারণে বর্ষাকালে বাচ্চাদের স্কুলে যেতে সমস্যা হয়। বয়স্ক লোকজন চলাচল করতে পারে না। ব্রীজটিতে দ্রুত সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা প্রয়োজন। এ বিষয়ে ঠিকাদার মান্নান বেপারী বলেন, ঐ সময় কেউ মাটি না দেয়ায় সংযোগ সড়ক নির্মাণ করতে পারিনি। কালকে আমি লোকজন পাঠাবো তারা মাটি ভরাট করে দিবে। এ বিষয়ে ভেদরগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী আক্তার হোসেন বলেন, আমি আসার আগে ব্রীজটি নির্মাণ করা হয়েছে। আমি ঠিকাদারকে বলেছি কাজটি করে দিতে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাব্বির আহমেদ বলেন, আমি গতকাল ব্রীজটি পরিদর্শন করেছি। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ঠিকাদার দুই পাশের মাটি ভরাট করে দিবেন বলে কথা দিয়েছেন।

Total View: 1031

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter