মঙ্গলবার,  ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,  ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  সকাল ১০:২৫

ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন সফল করতে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা

জানুয়ারি ৭, ২০২০ , ২১:৪৬

স্টাফ রিপোর্টার
ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন সফল করতে শরীয়তপুরে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় সিভিল সার্জনের সম্মেলন কক্ষে এ ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।
আগামী ১১ জানুয়ারী ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন সফল করতে সিভিল সার্জন অফিস এই ওরিয়েন্টেশন কর্মশালার আয়োজন করেন।
সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন মেডিকেল অফিসার ডাঃ সৈয়দা শাহিনুর নাজিয়া, জেলা ইপিআই ইন্সিপেক্টর মোজাম্মেল হক এবং সিভিল সার্জন অফিসের প্রধান হিসাব রক্ষক এইচ এম শাহ আলম।
ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন বাস্তবায়ন করবে জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠান ও জাতীয় পুষ্টি সেবা। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন সফল ভাবে সম্পন্ন করতে সার্বিক সহায়তা করবেন।
ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা থেকে জানা গেছে, শরীয়তপুর জেলায় ৬টি উপজেলা, ৬টি পৌরসভা ও ৬৭টি ইউনিয়ন রয়েছে। ১৩ লাখ ২১৫ লোকের বসবাস এই জেলায়। এর মধ্যে শূণ্য থেকে ১১ মাস বয়সী শিশুর সংখ্যা ৩০ হাজার ৭৮৪ জন এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুর সংখ্যা ১ লাখ ৫০ হাজার ৬১৮ জন। ১১ মাস বয়সী শিশুদের ১ লাখ পাওয়ার সম্পন্ন নীল রঙের ও ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুদের ২ লাখ পাওয়ার সম্পন্ন লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ান হবে। এই ক্যাম্পেইন বাস্তবায়নের জন্য ১ হাজার ৭৬৭টি কেন্দ্র খুলে ২৫৭ জন স্বাস্থ্য সহকারি, ১২০ জন সিএইচসিপি ও ৩ হাজার ৩৫৪ স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত থাকবেন। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৮টা পর্যন্ত এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। কোন শিশু যেন এই সেবা থেকে বাদ না যায় সেই লক্ষ্যে ৭টি অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।
ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা থেকে সিভিল সার্জন ডাঃ খলিলুর রহমান বলেন, ৫ বছরের বেশী বয়সী মানুষ স্বাভাবিক খাবার খেলে শরীরে ভিটামিন ‘এ’ উৎপন্ন হয়। এর কম বয়সী শিুশুদের রাতকানা রোগ প্রতিরোধের জন্য এই ভিটামিন ‘এ’ দেয়া হয়। এর পাশাপাশি শিশুকে মায়ের দুধ ও স্বাভাবিক খাবার দিতে হবে। ভিটামিন ‘এ’র কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নাই। অনেক সময় এসিডিটির কারণে শিশুর বমিবমি ভাব হতে পারে। এই জন্য ভয়ের কোন কারণ নেই। প্রতিটি শিশু যেন নির্ধারিত দিনের নির্ধারিত সময় ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইনে অংশগ্রহণ করতে পারে সাংবাদিকদের লেখনির মাধ্যমে সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে আহবান জানান সিভিল সার্জন ডাঃ খলিলুর রহমান।

Total View: 204

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter