মঙ্গলবার,  ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,  ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  রাত ৯:২৮

ভ্যাট তুলে নিলে দেশে ইন্টারনেট বিপ্লব ঘটবে: মোস্তাফা জব্বার

ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৮ , ১৯:৫৫

স্টাফ রিপোর্টার
ইন্টারনেটের ওপর থেকে ভ্যাট তুলে নেওয়া হলে দেশে ইন্টারনেট বিপ্লব ঘটবে বলে মন্তব্য করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

২০ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মোবাইল অপারেটর রবির ৬৪ জেলায় ফোরজি সেবার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘সিম প্রতিস্থাপনে এনবিআর যে চার্জ নিতে চায় তা নিয়ে আমি অর্থমন্ত্রীর সাথে আলোচনা করব। আর ইন্টারনেটের ওপর থেকে ভ্যাট তুলে নেওয়া হলে দেশে ইন্টারনেট বিপ্লব ঘটবে বলে আমার বিশ্বাস।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আমার কাছে যে কয়েকটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের লোগো পছন্দ সেগুলোর মধ্যে রবির লোগোই সবচেয়ে বেশি ভাল লাগে। এর অন্যতম একটি কারণ এটি বাংলায় লেখা এবং এ ফন্টটি আমার করা। আজকের দিনটি স্মরণীয় হয়ে থাকবে। গতকালই ফোরজি লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। আর এত অল্প সময়ের মধ্যে জেলা পর্যায় পর্যন্ত ফোরজি সেবা পৌঁছে দেওয়ার জন্য রবিকে ধন্যবাদ। আপনাদের হাত ধরে গ্রামে গ্রামে ফোরজি সেবা পৌঁছে গেলে গ্রামের কর্মহীন মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হবে।

অনুষ্ঠানে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘আজ একটি ঐতিহাসিক দিন। আজ আমরা মোবাইল ওয়্যারলেস প্রযুক্তির চতুর্থ প্রজন্মে প্রবেশ করলাম। আইসিটি বিভাগের হাইস্কুল প্রোগ্রামিং কন্টেস্ট, নারীর ক্ষমতায়নে আইসিটি প্রশিক্ষণ বাস, দেশের বৃহত্তম অনলাইন এডকেশন প্লাটফর্ম টেন মিনিট স্কুলের সাথে যুক্ত রয়েছে রবি। সামনের দিনগুলোতেও ফোরজি প্রযুক্তি সাথে নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তির প্রসারে রবিকে পাশে পাব বলে আমাদের প্রত্যাশা।

রবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর আজ থেকে দেশে ফোরজি সেবা চালু করতে পেরে আমরা আনন্দিত। আজ একটি ঐতিহাসিক দিন এবং এ দিনটির তাৎপর্য সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে একযোগে দেশের ৬৪টি জেলায় ফোরজি সেবা চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে ফোরজি সেবা সফল করতে ফোরজি ডিভাইসের ওপর কর কমানো, ফোরজি অবকাঠামো পণ্যের ওপর শুল্ক কমানো, গ্রামীণ এলাকায় ফোরজি সেবা চালুর ক্ষেত্রে বিশেষ প্রণোদনা প্রদান, ভ্যাট নিয়ে সব ধরনের বিরোধের নিষ্পত্তি এবং প্রতিবেশী দেশগুলোর মতো একক লাইসেন্সিং প্রক্রিয়ার বিষয়গুলো সরকারের বিবেচনা করা উচিত।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রদূত নূর আশিকিন বিনতি মোহাম্মদ তাইব, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার ও বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ। এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় হাইকমিশন ও জাপানি দূতাবাসের প্রতিনিধি।

Total View: 1037

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter