বৃহস্পতিবার,  ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,  ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  সন্ধ্যা ৬:৩০

যৌতুক না পাওয়ায় শ্বাসরোধ করে হত্যা করে এক গৃহবধূকে

মে ১৭, ২০১৮ , ০০:০৬

স্টাফ রিপোর্টার
শরীয়তপুরে যৌতুকের দাবি মেটাতে না পারায় শশুর বাড়ির লোকেরা খাদিজা আক্তার নামে এক গৃহবধুকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ১৫ মে মঙ্গলবার গভীর রাতে খাদিজার স্বামী ও শশুর-শাশুরী মিলে শারীরিক নির্যাতনের এক পর্যায়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। নিহতের মরদেহ ময়না তদন্তের পর হস্তান্তর করা হয়েছে তার পরিবারের কাছে। এ বিষয়ে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে খাদিজার পরবিার।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মাত্র ১৪ মাস আগে শরীয়তপুর সদর উপজেলার আঙ্গারিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ভাসানচর গ্রামের ছামাদ মৃধার ছেলে এবাদুল মৃধার সাথে বিয়ে হয় একই ইউনিয়নের চরযাদবপুর গ্রামের দরিদ্র কৃষক গোলাম মাওলা কাজীর মেয়ে খাদিজা আক্তার মধুর। বিয়ের সময় খাদিজার পরিবার সাধ্য মত নগদ টাকা, আসবাবপত্র ও কিছু স্বর্ণালংকার দেন মেয়ের জামাইকে।
বিয়ের কিছুদিন না যেতেই আরো টাকা ও মোটর সাইকেল কিনে দেয়ার জন্য শশুর বাড়ির লোকেরা চাপ দিতে থাকে খাদিজা ও তার মা বাবাকে। দরিদ্র মা বাবা মেয়ের শশুর বাড়ির লোকদের অন্যায় দাবি পূরণ করতে না পারায় নির্যাতন শুরু হয় খাদিজার ওপর। নির্যাতন সইতে না পেরে সম্প্রতি খাদিজা তার বাবার বাড়ি চলে যান। এরপর খাদিজার স্বামী তাকে ফিরিয়ে আনতে গেলে খাদিজার মা বাবা যৌতুকলোভী স্বামীর কাছে খাদিজাকে দিতে অস্বীকৃতি জানান।
গত তিন দিন আগে রবিবার আর কোন অত্যাচার-নির্যাতন না করার শর্তে খাদিজার মা বাবাকে অনুরোধ করে স্থানীয় মালেক সরদারের স্ত্রী খাদিজাকে তার শশুর বাড়ি নিয়ে যায়। কিন্তু কথা রাখেনি পাষন্ড স্বামী এবাদুল মৃধা, তার মা রিজিয়া বেগম ও বাবা ছামাদ মৃধা। নতুন করে শুরু হয় শারীরিক নির্যাতন। বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক এনে দেয়ার জন্য মারপিট চলতে থাকে রাত দিন।
মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকে খাদিজার স্বামী, শশুর ও শাশুরী মিলে শারীরিক নির্যাতন শুরু করে খাদিজার উপর। নির্যাতনের এক পর্যায় রাত দুইটার দিকে খাদিজাকে গলা টিপে শ্বাস রোধ করে খুন করে পাষন্ডের দল। তারা খাদিজাকে খুন করে বাড়ির সকল মালামাল এমনকি গবাদিপশু নিয়ে ভোর হওয়ার আগেই বাড়ি ছেরে পালিয়ে যায়।
স্থানীয়রা হত্যাকান্ডের কথা জানতে পেরে খবর দেয় খাদিজার পরিবারকে। সকাল ৬ টায় গিয়ে খাদিজার স্বজনরা ঘরের ভেতর লাশ দেখে পুলিশে খবর পাঠালে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন। বুধবার দুপুরে ময়না তদন্ত শেষে খাদিজার মরদেহ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ বিষয়ে খাদিজার পরিবার একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মনিরুজ্জামান।

Total View: 953

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter