শুক্রবার,  ৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,  ২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,  রাত ১২:২৯

সখিপুরে মারা মারির ঘটনায় ২ শিশু আহত

এপ্রিল ২৯, ২০১৮ , ১৯:৪৬

শাহাদাৎ হোসেন হিরো
সখিপুরের চরবাঘা ইউনিয়নে পেদাকান্দি গ্রামের আজম উদ্দীন পেদার বিরুদ্ধে দুইটি শিশুকে মারধর করে আহত করা অভিযোগ উঠেছে। আজম উদ্দীন পেদা ২৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় চরবাঘা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের পেদাকান্দি গ্রামের মৃত জলিল দেওয়ানের বাড়িতে এসে ঐ শিশু দুটিকে মারধর করে আহত করেন। আহত শিশু দুটি হচ্ছে জামাল দেওয়ান (১০) এবং জুলিয়া আক্তার (১২)। আহত জামাল দেওয়ান পেদাকান্দি আক্কাছ আলী হাওলাদার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র এবং জুলিয়া আক্তার একই বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী। তারা পেদাকান্দি গ্রামের মৃত জলিল দেওয়ানের সন্তান। প্রত্যক্ষদর্শী সিদ্দিক হাওলাদার জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে বিদ্যালয় ছুটি হওয়ার পর বাড়িতে আসার সময় আজম উদ্দিন পেদার ছেলে একই বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র শাহ জালাল পেদার সাথে জামাল দেওয়ানের কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তাদের সাথে মারামারি বাঁধে। তখন স্থানীয় লোকজন তাদেরকে ছাড়িয়ে দেয়। পরে শাহ জালাল বাড়িতে গিয়ে তার বাবা আজম উদ্দীনকে ব্যাপারটি জানান। আজম উদ্দিন তাৎক্ষণিক ভাবে জামালের বাড়িতে গিয়ে জামাল ও তার বোন জুলিয়াকে অনেক মারধর করে। মারধরের এক পর্যায়ে জামাল এবং জুলিয়া জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। তখন আজম উদ্দীন সেখান থেকে পালিয়ে যায়। অচেতন অবস্থায় পরে থাকতে দেখে স্থানীয়রা তাদেরকে ভেদরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। প্রতিবেশী সাহিদা বেগম বলেন, জামাল এবং জুলিয়া দুইটি এতিম বাচ্চ। ওদের বাবা নেই। বাবা মারা গেছে অনেক আগে। ওদের মা রাবেয়া বেগম মানুষের বাড়িতে মরিচ তুলে খুব কষ্ট করে সংসার চালায়। ছোট বাচ্চাদের মারামারিকে কেন্দ্র করে বাবা মায়ের উত্তেজিত হওয়া চলে না। আজম উদ্দিন যে কাজটি করেছে তা মোটেই ভাল কাজ করেনি। আজকে ওদের বাবা বেঁচে থাকলে আজম উদ্দিন এভাবে তাদেরকে মারতে পারতো না। বাবা নাই বলেই আজ অসহায় এতিম বাচ্চা দুটিকে মারতে পারলো। আমি চাই আজম উদ্দিনের উপযুক্ত বিচার হউক। এ ব্যাপারে ভেদরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও জরুরী বিভাগের ফার্মসিষ্ট আতিকুর রহমান বলেন, জামাল দেওয়ান এবং জুলিয়া আক্তার নামে দুই জন শিশুকে ভর্তি দেয়া হয়েছে। তাদের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। সুস্থ্য হওয়ার জন্য তাদেরকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ.কে.এম মঞ্জুরুল হক আকন্দ বলেন, থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী হয়েছে। তদন্ত চলছে। তদন্তের পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Total View: 1152

    আপনার মন্তব্য





সারাদেশ

কক্সবাজার

কিশোরগঞ্জ

কুড়িগ্রাম

কুমিল্লা

কুষ্টিয়া

খাগড়াছড়ি

খুলনা

গাইবান্ধা

গাজীপুর

গোপালগঞ্জ

চট্টগ্রাম

চাঁদপুর

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চুয়াডাঙা

জয়পুরহাট

জামালপুর

ঝালকাঠী

ঝিনাইদহ

টাঙ্গাইল

ঠাকুরগাঁও

ঢাকা

দিনাজপুর

নওগাঁ

নড়াইল

নরসিংদী

নাটোর

নারায়ণগঞ্জ

নীলফামারী

নেত্রকোনা

নোয়াখালী

পঞ্চগড়

পটুয়াখালি

পাবনা

পিরোজপুর

ফরিদপুর

ফেনী

বগুড়া

বরগুনা

বরিশাল

বাগেরহাট

বান্দরবান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ভোলা

ময়মনসিংহ

মাগুরা

মাদারীপুর

মানিকগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জ

মেহেরপুর

মৌলভীবাজার

যশোর

রংপুর

রাঙামাটি

রাজবাড়ী

রাজশাহী

লক্ষ্মীপুর

লালমনিরহাট

শরীয়তপুর

শেরপুর

সাতক্ষীরা

সিরাজগঞ্জ

সিলেট

সুনামগঞ্জ

হবিগঞ্জ

Flag Counter